সিলেটে হয়ে গেল সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ও অ্যাওয়ার্ড বিতরণ

সিলেট প্রতিনিধি::

সিলেটে ঝাঁকজমকপূর্নভাবে হয়ে গেল সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ও অ্যাওয়ার্ড বিতরণ অনুষ্ঠান ২০১৮ ।

সিলেট বিভাগের জগন্নাথপুর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী সামাজিক সংগঠন-সে ফাউন্ডেশন । সে ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে  ঝাঁকজমকপূর্নভাবে গুণীজনদের উপস্থিতিতে সে ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ও সৈয়দপুর আদর্শ কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মুহাম্মদ শাহেদ রাহমানের সভাপতিত্বে- সিলেটে গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হলো।

এ গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিতি ছিল যেন-  ছাত্র -শিক্ষক, অভিবাবক, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, সংস্কৃতিকর্মিদের মিলনমেলা ।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে – গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, বিএ এমএ পাস করলে লেখাপড়ার গাইডলাইন পাওয়া যায়।  কিন্তু গভীর জ্ঞানী হওয়া যায় না। জ্ঞানী হতে হয় গভীর অধ্যবসায়ের মাধ্যমে। প্রচুর বই পড়ে জ্ঞান অর্জন করতে হয়। নিরবচ্ছিন্ন গবেষণামূলক অধ্যয়ন করে জ্ঞানী হতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় উচ্চমাধ্যমিক ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাল মানের পড়া হয়। কিন্তু মাধ্যমিক স্তরে আরও বেশি মনোযোগী হতে হবে। আমাদের শিক্ষকদেরকে সে দায়িত্ব নিতে হবে।

বৃহস্পতিবার (২৫ অক্টোবর ২০১৮) বিকেলে সিলেট নগরীর আম্বরখানাস্থ একটি হোটেলের হলরুমে  সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক, মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ও মেধাবী স্টুডেন্ট অ্যাওয়ার্ড বিতরণ অনুষ্ঠান ২০১৮ অনুষ্ঠিত হলো।

এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে – অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, আজকে সে ফাউন্ডেশন শিক্ষকদের সংবর্ধনা দিয়ে গুরু দায়িত্ব পালন করছে ।

যা ২০০৬ সাল থেকে এই শিক্ষক সম্মাননা পদক বিতরণ ও ১ম শাহ আশরাফুন্নেছা কামালী স্মৃতি প্রাইমারী শিক্ষা বৃত্তি বিতরণ শুরু হয়েছিল । সে দিনও  অনুষ্ঠানে আমি প্রধান অতিথি ছিলাম।  আজও ((২৫ অক্টোবর ২০১৮) ১২তম শিক্ষক সম্মাননা পদক বিতরণি অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পেরে আমি আনন্দিত ।

তিনি বলেন– সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক প্রদান করে অর্থাৎ শিক্ষকদের মর্যাদা দিয়ে, স্বীকৃতি দিয়ে অনেক বড় সামাজিক দায়িত্ব পালন করেছে। আমি ব্যক্তিগতভাবে এতে খুবই খুশি হয়েছি।

তিনি শিক্ষাউন্নয়ন ও মানবকল্যাণে ১৯৯৯ সালে জগন্নাথপুরে প্রতিষ্ঠিত সে ফাউন্ডেশনের এ কাজকে আরো গতিশীল করতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে আহবান জানান।

এ গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশনের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- সে ফাউন্ডেশনের উপদেষ্ঠা ও প্রধান শিক্ষক শাহজাদী খানম । এ অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন- শিক্ষক মিঠুন চন্দ্র দাশ।

অনুষ্ঠানে আরো অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, মদন মোহন কলেজের বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক হোসনে আরা কামালী ও দৈনিক উত্তরপূর্বের প্রধান সম্পাদক আজিজ আহমদ সেলিম প্রমুখ।

বক্তব্য রাখেন- সংবর্ধিত অতিথি সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ২০১৫ প্রাপ্ত গুণীশিক্ষক মদন মোহন কলেজের অধ্যক্ষ ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ ।

সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক প্রাপ্ত  সম্মানিত গুণীশিক্ষকবৃন্দ হলেন-  (২০১৪ সাল থেকে ২০১৭ পর্যন্ত) :

মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ ( সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ২০১৬  ) ।

সিলেট শাবিপ্রবির বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. জফির সেতু ( সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ২০১৬  ) ।

সিলেট কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ ড. মোস্তাক আহমাদ দীন ( সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ২০১৭  ) ।

জামালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক সুকেশ রঞ্জন তালুকদার  ( সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ২০১৭ ) ।

সিলেট খাজান্সি বাড়ি ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের উপাধ্যক্ষ তাহিয়া সিদ্দিকা  ( সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ২০১৬ )।

সিলেট জেলার কুচাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আলা উদ্দিন ( সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ২০১৪  )

সুনামগন্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার ছিরামিশি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আব্দুল মালিক ( সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ২০১৫ ) । ও

সিলেট ওসমানীনগর উপজেলার তাজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফিরোজা আক্তার নিপা ( সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক ২০১৬ )।

কবি, প্রভাষক মামুন সুলতান ও প্রভাষক আব্দুর রহিমের যৌথ উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন সাংবাদিক এনামুল হক রেনু, সাংবাদিক আব্দুল হাই ও সাংবাদিক জুবেল আহমদ সেকেল। ট্যালেন্ড স্টুডেন্ট অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন মেধাবী শিক্ষার্থী সৈয়দা নুসরাত শারমিন ও সৈয়দ ফাহিম।

অনুষ্ঠানে অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ করেন- সে ফাউন্ডেশনের পক্ষে – রুহেলা বেগম রাহমান, এস এম কাইয়ুম, আলাউদ্দিন আহমদ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন – শাহারপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি ছুফি মিয়া কামালী, সিলেটের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলা মিয়া, সিলেট মহানগর যুবলীগের আহবায়ক আলম খান মুক্তি , সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাহাত তরফদার , জগন্নাথপুর উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মুহিবুর রহমান রাসেল সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

সমগ্র অনুষ্ঠান সহযোগিতায় ছিলো ট্যুরিস্ট ক্লাব অব এমসি কলেজ সিলেট।

Leave a Reply